সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব গোলাম সবুর টুলুর ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।

বরগুনা-২ বামনা-পাথরঘাটা বেতাগী আসনের সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম সবুর টুলুর এমপির ৭ম মৃত্যু বার্ষিকী আজ।

এ উপলক্ষে গোলাম সবুর টুলু ফাউন্ডেশন ও পাথরঘাটা উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে খতমে কোরআন ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেছে। দলীয় সূত্রে জানা যায় করোনার কারনে কর্মসূচি সংক্ষেপ করে দুপুরে ঢাকার একটি ইয়াতিম খানায় দুপুরের খাবার বিতরণ ও আসরের নামাজের পর পাথরঘাটা উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে মিলাদ মাহফিলের অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ২৬ জুলাই শুক্রবার বিকেল পৌনে চারটা ফরিদপুরের ভাঙ্গায় চুমুরদি বাসস্ট্যান্ডের পাশে তার ব্যক্তিগত গাড়ি খাদে পড়ে গেলে সাংসদ গোলাম সবুর (৫৮) মৃতুবরণ করেন।

বরগুনার বেতাগীতে দলীয় অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে মাইক্রোবাসে ঢাকায় আসার পথে ফরিদপুর-বরিশাল সড়কের ভাঙ্গার চুমুরদি বাসস্ট্যান্ডের কাছে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে গাড়িটি উল্টে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। দুর্ঘটনায় সাংসদের ভাই গোলাম শহীদ নীলু, পাথরঘাটা আদর্শ বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদ, সাংসদের ব্যক্তিগত সহকারী শহিদুল ইসলাম ও গাড়িচালক সগির হোসেন গুরুতর আহত হন।

সাংসদ গোলাম সবুর বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার কালমেঘা গ্রামের মরহুম ফয়জদ্দিন হাওলাদারের ছেলে। ছয় ভাইয়ের মধ্যে তিনি পঞ্চম। ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি প্রথম সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন। বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন তিনি। তিনি মধুমতি সিরামিকস ইন্ডাস্ট্রিজের মালিক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান অপসোনিন ফার্মাসিউটিক্যালসের মালিক মরহুম আবদুল খালেক খানের জামাতা।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে