বাবা-মাকে বেঁধে পিটিয়ে মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ

মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ

কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার ছিনাই ইউনিয়নে গভীর রাতে বৃষ্টির মধ্যে বাড়িতে ঢুকে বাবা-মা ও ছোট বোনকে পিটিয়ে নবম শ্রেণি পড়ুয়া এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার (২৬ জুলাই) দিবাগত মধ্যরাতে ইউনিয়নের মহিধর খন্ডক্ষেত্র গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রাজারহাট থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) রাজু সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ভুক্তভোগী কিশোরী স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। তার বাবা একই বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী পদে কর্মরত।

এ ঘটনায় ওই কিশোরীর পরিবারের সদস্যরা চরম আতঙ্কে রয়েছে বলে জানা গেছে। ভুক্তভোগী কিশোরী ও তার পরিবারের বরাত দিয়ে ওসি জানান,

রবিবার দিবাগত মধ্যরাতে বৃষ্টির মধ্যে অজ্ঞাত পরিচয়ের তিন যুবক ভুক্তভোগী কিশোরীর বাড়িতে প্রবেশ করে তার বাবা-মা ও ছোট বোনকে পিটিয়ে ওই কিশোরীকে পার্শবর্তী একটি গাছ বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে ।

এসময় অপর দুই যুবক কিশোরীর বাবার চোখ ও পা বেঁধে ফেলে এবং বাড়ির সদস্যদের পিটিয়ে জিম্মি করে। ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা জানান,

মুখশ পরিহিত থাকায় বাড়িতে আসা যুবকদের তিনি চিনতে পারেননি। অজ্ঞাত একটি নাম্বার থেকে তাদের ফোনে বিভিন্ন সময় অশালীন ভাষায় লেখা ম্যাসেজ আসতো।

এছাড়াও তাদের বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদের জন্য পার্শবর্তী জমির মালিক এক প্রকৌশলী নানাভাবে চাপ দিয়ে আসছে।

এই দুই পক্ষের কেউ শত্রুতা বশত: এই ঘটনা ঘটাতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তিনি। এ ঘটনায় সুষ্ঠু বিচার চান ভুক্তভোগীর এই পিতা।

ওসি জানান, মামলার প্রস্তুতির পাশাপাশি তদন্ত চলছে। ভুক্তভোগী কিশোরীকে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ওসি বলেন,‘সকল দিক বিবেচনায় নিয়ে গুরুত্বের সাথে তদন্ত কাজ চলছে। খুব শিঘ্রই ঘটনার রহস্য উৎঘাটন সম্ভব হবে বলে জানান ওসি।’

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে