শিক্ষার্থীদের জন্য যে সিদ্ধান্ত আসতেছে।

নিউজ ডেস্ক,

শিক্ষার্থীদের জন্য  যে সিদ্ধান্ত আসতেছে এবছর।

কোভিট( ১৯) এর কারণে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়িয়েছে সরকার। গত ১৭ মার্চ থেকে শুরু হওয়া এ ছুটি আরও বাড়তে পারে।
এ কারণে ইতোমধ্যে ১২ মাসের শিক্ষাবর্ষের প্রায় অর্ধেক নষ্ট হয়ে গেছে। সে ক্ষতি পুষিয়ে নিতে এবার ‘রিকভারি প্ল্যান-২০২০’ গ্রহণ করছে সরকার। সে আলোকে নিজ নিজ শিক্ষার্থীদের সিলেবাস ও কারিকুলাম নিয়ে ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।
সেখানে বলা হয়েছে  চলতি বছর প্রাথমিক সমাপনী, জেএসসি-জেডিসি ছাড়াও সব পরীক্ষা বহাল থাকছে। সিলেবাস কমিয়ে শিক্ষার্থীদের টানা ২ মাস পড়িয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রয়োজনে পরীক্ষার বিষয় কাটছাঁট ও কিছু বিষয়ে পরীক্ষা না নিয়ে ধারাবাহিক মূল্যায়ন হতে পারে।

তথ্য মতে, আগামী সেপ্টেম্বরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে পারে- সে বিষয়টি মাথায় রেখে এ পরিকল্পনা সাজানো হচ্ছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললে ছুটি কমিয়ে টানা ২ মাস ক্লাস চলবে। এরপর ডিসেম্বরে বার্ষিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। আর সেপ্টেম্বরে না খোলা গেলে আগামী বছরের প্রথম ২ মাস বর্তমান শিক্ষাবর্ষের সঙ্গে যুক্ত করে শিক্ষাবর্ষ শেষ করা হবে। সে ক্ষেত্রে বার্ষিক পরীক্ষা হবে ফেব্রুয়ারিতে। আর ২০২১ শিক্ষাবর্ষের মেয়াদ হবে ১০ মাস।
এ বিষয়ে এনসিটিবির চেয়ারম্যান নারায়ণ চন্দ্র সাহা বলেন, সিলেবাস না কমিয়ে শিক্ষাবর্ষ আগামী ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানোর প্রস্তাব করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষাবর্ষ করা হলে আগামী মার্চ থেকে ২০২১ শিক্ষাবর্ষ যদি শুরু করা হয় ও ছুটি কমানো হয় তাহলে একাডেমিক কোনো ক্ষতি হবে না শিক্ষার্থীদের।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে