জীবন মরণের ঝুঁকিতে অন্ত:সত্ত্বা গৃহবধু।

নিজস্ব প্রতিবেদক,

মোংলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক অন্ত:সত্ত্বা গৃহবধুর উপর অমানসিক নিযার্তনের অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রতিপক্ষ প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে। পেট ও পিঠসহ শরীরের বিভিন্নস্থানে গুরুতর আঘাত পেয়ে আহত গৃহবধু কয়েকদিন ধরে হাসপাতালের বেডে জীবন মরণের ঝুঁকিতে রয়েছে।

থানায় দাখিলকৃত অভিযোগ ও নিযার্তনের শিকার গৃহবধুসহ তার স্বজনেরা জানান, উপজেলার চাঁদপাই ইউনিয়নের উত্তর চাঁদপাই গ্রামের হাবিব মোড়লের ৭ মাসের অন্ত:সত্ত্বা স্ত্রী চম্পা বেগম (২২) মঙ্গলবার দুপুরে প্রতিবেশী মুরাদ শেখের (২৬) বাড়ীর উপর দিয়ে অপর প্রতিবেশীর বাড়ী যাচ্ছিল। এ সময় ওই বাড়ীর মালিক মুরাদ শেখ চম্পার গতিরোধ করে এবং তার বাড়ীর উপর দিয়ে যাওয়ার ঘটনায় তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে অশ্লীল গালিগালাজ করতে থাকেন। খবর পেয়ে চম্পার দেবর মারুফ মোড়ল সেখানে গেলে মুরাদ তাকেও গালিগালাজ করে ভয়। এতে উভয় পক্ষ বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এর এক পযার্য়ে মুরাদসহ তার পরিবারের লোকজন সংঘবদ্ধ হয়ে চম্পা ও মারুফকে বেদম মারপিট করেন। পরে সেখান থেকে তাদেরকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। মারুফ প্রাথমিক চিকিৎসায় কিছুটা সুস্থ্য হলেও হাসপাতালের বেডে জীবন মরণের সন্ধীক্ষণে রয়েছে চম্পা বেগম। কিছুটা সুস্থ্য হওয়ার পর মারুফ বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার থানা একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এদিকে প্রতিবেশী প্রতিপক্ষ ও অভিযুক্ত মুরাদ শেখের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল ফোনটি (০১৯৩৩৮২২৪৭৬) বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে মোংলা থানার এসএই বিশ্বজিৎ মুখার্জী বলেন, খবর পেয়ে আমি তাৎক্ষনিকভাবে হাসপাতালে গিয়ে ওই মহিলাকে দেখে আসি। এরপর ঘটনাটি নিয়ে তদন্ত চলছে, তদন্ত শেষে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে