কুড়িগ্রামে কচাকাটায় বেড়াতে গিয়ে দুই বান্ধবী ধর্ষনের শিকার, থানায় অভিযোগ।

নিজস্ব প্রতিবেদক,


কুড়িগ্রামের কচাকাটায় বেড়াতে গিয়ে দুই বান্ধবী ধর্ষনের শিকার হয়েছে। ঘটানার তিনদিন পর থানায় অভিযোগ করেন দুই নিগৃহিতার পরিবার। নিগৃহিত দুই কিশোরী এখন থানা হেফাজতে আছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে গত ১০ অাগষ্ট সোমবার দুপুরে জেলার কচাকাটা থানার বল্লভের খাস ইউনিয়নের চর-কৃ পুর গ্রামে। ঘটনার শিকার দুই কিশোরীর একজন স্থানীয় নুরানী মাদ্রাসার প ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী এবং অপরজন ওই মাদ্রাসার প ম শ্রেনী থেকে লেখাপড়া বাদ দিয়েছে বলে জানিয়েছে পরিরবার।
প্রতিবেশী ওই দুই কিশোরীর পিতারা জানায়, সোমবার সকালে একসাথে প্রথম বান্ধবী (১৫) গ্রামের শেষ প্রান্তে নানার বাড়ি এবং দ্বিতীয় বান্ধবী (১৪) একই এলাকায় ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে যায়। গ্রামটি চরা ল হওয়ায় কোন সড়ক পথ না থাকায় ক্ষেতের আল পথ ধরে সেখানে যায় তারা। এসময় কয়েক বিঘা পাট ক্ষেতের ভিতর দিয়ে আল-পথ পার হতে হয় তাদের। দুপুরে ফেরার সময় আল পথের পাট ক্ষেতের মাঝামাঝি আসলে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা একই গ্রামের মজিবরের ছেলে আল-আমিন (২৫) এবং জসমত মেম্বারের ছেলে খোকা (২২) দুইজন তাদের দুইজনকে জাপটে ধরে পাট ক্ষেতের ভিতরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষন করে। এসময় তাদের মুখে কাপড় গুজে দেয়া হয় বলে জানায় তারা। পরে দ্বিতীয় কিশোরীর কান্নাকাটিতে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসে এবং তাদের সেখান থেকে উদ্ধার করে বাড়িতে পাঠায়। এ ঘটনায় দুইদিন ব্যাপি স্থানীয় মাতবরদের চলে মিমাংসার দেনদরবার। পরে উপায়ান্তু না পেয়ে প্রথম কিশোরী বুধবার রাতে এবং দ্বিতীয় কিশোরী বৃহ:স্পতিবার দুপুরে কচাকাটা থানায় অভিযোগ দেয় দুই কিশোরীর পিতারা।

কচাকাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন অর রশিদ দুই কিশোরীর ধর্ষনের অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন প্রথম কিশোরীদের সাথে ওই দুই যুবকের প্রেম সংঘঠিত বিষয় থাকতে পারে। এ বিষয়ে ভিকটিমদের জিঙ্গাসবাদ করা হচ্ছে।

কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান বিপিএম বলেন, প্রাথমিক তদন্ত শেষে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে। এ ধরনের অপরাধে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে