বিমানবন্দরে প্রবাসী স্বামীকে নিতে এসে দুই বউয়ের টানাটানি রুপ নেয় সংঘর্ষে।

এক স্বামীকে নিয়ে দুই স্ত্রীর টানাটানি রুপ নেয় সংঘর্ষে। প্রথম স্ত্রীর দাবি, তার স্বামী অনুমতি না নিয়েই দ্বিতীয় বিয়ে করে তাকে ভরণপোষণ দেন না। আর দ্বিতীয় স্ত্রী নিজেকে প্রথম বলে দাবি করেন। এ ঘটনায় দুই স্ত্রীসহ মালদ্বীপ ফেরত প্রবাসী মইনুলকে পাঠানো হয় উত্তরা থানায়।
মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) বিকেলে এভাবেই বিদেশ ফেরত স্বামীকে নিয়ে টানা-হেচড়া শুরু করেন ২ স্ত্রী। মালদ্বীপ থেকে প্রবাসী মইনুল দেশে ফিরে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে নিজ বাড়ি কুমিল্লা যাওয়ার জন্য ভাড়া গাড়িতে উঠে বসলেই টেনে নামানোর চেষ্টা করে তার প্রথম স্ত্রী সানজিদা।
তার দাবি, ৭ বছর আগে তাদের বিয়ে হলেও তাকে না জানিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেন তার স্বামী।
মইনুলের দ্বিতীয় স্ত্রী তমার দাবি, তিনিই প্রথম স্ত্রী। স্বামীকে তার বাড়িতে নিয়ে যেতে হাতাহাতি শুরু করেন সানজিদার সাথে।
আইনগতভাবে বিচ্ছেদ না হলেও সানজিদা ও তার ৩ বছরের শিশুর কোনো ভরণপোষণ দেন না মইনুল। সানজিদাকে প্রথম স্ত্রী হিসেবে স্বীকার করলেও তার সাথে আর সংসার করতে চান না বলেও জানান মইনুল।
মইনুলকে নিজ অধিকারে নিতে দুই স্ত্রীর এমন টানা হেচড়ার মধ্যে বিষয়টি মিমাংসা করতে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয় তিন জনকেই।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে