৪২ সেন্টিমিটার বিপদসীমার উপরে ধরলার কুড়িগ্রামে পানি

ফাইল ছবি

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি -১২.০৭.২০

কুড়িগ্রামে অস্বাভাবিক ভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে ব্রহ্মপুত্র, ধরলা, তিস্তা, দুধকুমারসহ ১৬টি নদ-নদীর পানি। প্লাবিত হয়ে পড়েছে নদ-নদীর অববাহিকার নিম্নাঞ্চলসহ চরাঞ্চলগুলো। প্রথম দফা বন্যার পানি নেমে যেতে না যেতেই আবারো বন্যা কবলিত হয়ে পড়ায় দুর্ভোগ বেড়েছে পানিবন্দি মানুষজনের।

এদিকে জরুরী বৈঠক করে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন। কুড়িগ্রাম সদরের ভোগডাঙ্গা ইউনিয়নের মাধবরাম এলাকার মিজানুর রহমান ও পলাশ জানান, আবার নতুন করে পানি বৃদ্ধি কারণে দুঃশ্চিতার আছি। আমাদের কষ্ট হোক সমস্যা নাই কিন্তু গবাদিপশু নিয়ে খুব সমস্যায় পড়তে হচ্ছে।

কুড়িগ্রাম সদরের ভোগডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মোঃ সাইদুল রহমান বলেন, কতগুরি পরিবার পানি বন্দি হয়েছে তার তালিকা করা হচ্ছে। তালিকার পড় বিস্তারিত বলা যাবে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, ধরলার পানি সেতু পয়েন্টে বিপদসীমার ৪২ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে, ব্রহ্মপুত্রের পানি চিলমারী পয়েন্টে ১০ সেন্টিমিটার, নুনখাওয়া পয়েন্টে ৫ সেন্টিমিটার ও তিস্তার পানি কাউনিয়া পয়েন্টে বিপদসীমা লেভেল দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক মোঃ রেজাউল করিম জানান, ভিজিএফের চাউল ৪ লক্ষ ২৮ হাজার লোককে ১০ কেজি করে বিতরণ করা হয়েছে এদিকে ২ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবারও বিতরণ হয়েছে।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে