কুড়িগ্রামে ধরলার ভাঙনে বিলীনের পথে মেখলির চর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়


গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিপাত ও উজানের ঢলে ধরলা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বিভিন্ন এলাকায় নদী ভাঙন তীব্র রুপ নিয়েছে। অব্যাহত ভাঙনে বিলীনের পথে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার মেখলির চর খন্দকারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
সোমবার স্কুলটির একাংশ নদী গর্ভে চলে গেছে। স্কুলের মালামাল সরিয়ে নিচ্ছেন শিক্ষকরা।
মেখলির চর খন্দকারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সবুর আলী জানান, ১৯৯০ সালে স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ৪ জন শিক্ষক ও প্রায় ১শত শিক্ষার্থী নিয়ে চর এলাকায় শিক্ষা বিস্তারে অবদান রাখছিলো স্কুলটি। ৪ রুম বিশিষ্ট স্কুলের ভবনটি নির্মিত হয় ২০০০ সালে। গত এক মাস ধরে মেকলি গ্রামে ধরলার ভাঙন চলছে। এতে এ পর্যন্ত ৪০ থেকে ৪৫ টি পরিবার গৃহহীন হয়েছে।
গত এক সপ্তাহ ধরে ধরলার তীব্র ভাঙনে স্কুলটির কাছে চলে আসে নদী। রবিবার থেকে নদীতে পানি বাড়ায় ধবসে পড়ার উপক্রম হয়েছে স্কুলের পাকা ভবনটি।
তিনি জানান, উপজেলা শিক্ষা অফিসের পরামর্শে স্কুলের চেয়ার, বেন্চ সহ অন্যান্য মালামাল সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।
ভাঙনের শিকার স্থানীয় বাসিন্দা বাছের আলী ও অাবদার অালী জানান, স্কুল ছাড়াও চর মেখলি জামে মসজিদও হুমকির মুখে। বর্তমানে তীব্র ভাঙনে প্রতিনিয়ত গৃহহীন হচ্ছে এই গ্রামের মানুষ।

উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার রাশেদুল ইসলাম মন্ডল জানান, সরেজমিন পরিদর্শন করে স্কুলের বর্তমান অবস্থা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানো হয়েছে।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে