নারী পাচারের অভিযোগে পুরস্কার প্রাপ্ত নৃত্যশিল্পী ইভান শাহরিয়ার গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক,

খ্যাতিমান নৃত্যশিল্পী ও কোরিওগ্রাফার ইভান শাহরিয়ার সোহাগকে গ্রেপ্তার করেছে বাংলাদেশ পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।  সিআইডির দাবি, তিনি দুবাইয়ে নারী পাচারকারী একটি চক্রের সঙ্গে জড়িত।

আজ শুক্রবার রাতে বিষয়টি এনটিভি অনলাইনকে নিশ্চিত করেছেন সিআইডির অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক শেখ মো. রেজাউল হায়দার। তিনি বলেন, ‘গোয়েন্দা তথ্যের ওপর ভিত্তি করে মানবপাচারের অভিযোগে সিআইডির ঢাকা মেট্রো উত্তর বিভাগ তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে।’

শেখ মো. রেজাউল হায়দার বলেন, ‘গত ২ জুলাই দুবাই পুলিশের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, আজম খান, তার দুই সহযোগী ডায়মন্ড ও আনোয়ার হোসেন ওরফে ময়নাকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে গ্রেপ্তার হন আজমের বাংলাদেশি প্রতিনিধি নির্মল সরকার ও মো. ইয়াছিন। এরইমধ্যে আজম খান ও তার দুই সহযোগী আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।’

অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক বলেন, ‘সেই জবানবন্দির ভিত্তিতেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে ইভান শাহরিয়ার সোহাগকে। জবানবন্দিতে আসামিরা বলেছেন, নারী পাচারের ঘটনায় মূলত কয়েকজন নৃত্য সংগঠক ও শিল্পী জড়িত। শুধু তাই নয়, এসব কাজে জড়িত ছোটখাটো ক্লাবের মালিকরাও। যারা ক্লাবে অথবা বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে নাচ করে ক্লাব কর্তৃপক্ষ মূলত তাদেরকে টার্গেট করে। দেশের  কয়েকটি জেলায় তাদের নেটওয়ার্ক বিস্তৃত বলে আমরা জানতে পেরেছি।’

শেখ মো. রেজাউল হায়দার আরো বলেন, ‘আমরা প্রথমে পাচারের শিকার হওয়া অনেক ভুক্তভোগীর সঙ্গে কথা বলি। তারপর সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মৃণাল কান্তি সাহা গত ২ জুলাই লালবাগ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় আজমসহ আল আমিন হোসেন ওরফে ডায়মন্ড, মো. স্বপন হোসেন, নির্মল (এজেন্ট), আলমগীর (দুবাই ক্লাবের সুপারভাইজার), আমান (এজেন্ট) ও শুভকে (এজেন্ট) আসামি করা হয়।’

শেখ মো. রেজাউল হায়দার বলেন, ‘আমাদের কাছে অভিযোগ ছিল, আজম খান ও তাঁর দুই ভাইসহ মামলার আসামিরা দুবাইয়ের হোটেল ও ড্যান্স বারে মেয়েদের যৌনকাজে বাধ্য করতেন। এই তিনজনের প্রতিনিধিরা দেশের বিভিন্ন নাচের ক্লাব বা সংগঠন থেকে মেয়েদের সংগ্রহ করে কাজ দেওয়ার নামে দুবাই পাঠাতেন। ইভান শাহরিয়ারের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ আমাদের কাছে ছিল। আমরা সেসব তথ্য যাচাই-বাছাই শেষে তাকে গ্রেপ্তার করেছি। এবং ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়েছি।’

‘ধ্যাততেরিকি’ সিনেমায় নৃত্য পরিচালনার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন ইভান শাহরিয়ার সোহাগ। তিনি ড্যান্স ট্রুপ নামে একটি ড্যান্স কোম্পানি পরিচালনা করে আসছিলেন। বিভিন্ন করপোরেট অনুষ্ঠানে নাচ করে তাঁর দল।

সূত্র এনটিভি অনলাইন //

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে