কুয়াকাটায় আবাসিক হোটেলে অভিযান; যৌনকর্মীসহ আটক-৫

ছবি.ঝিনুক ডাকবাংলো আবাসিক হোটেল কুয়াকাটা পটুয়াখালী।

কুয়াকাটা সংবাদদাতা: কুয়াকাটার আবাসিক হোটেলে দীর্ঘদিন ধরে চলছে রমরমা দেহ ব্যবসা। অভিযানে পতিতা, খদ্দের ও হোটেল ম্যানেজারসহ ৫ জনেক আটক করেছে মহিপুর থানা পুলিশ।

কুয়াকাটায় সরকারি ঝিনুক ডাকবাংলো থেকে যৌনকর্মীদের একটি দলকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ০৯ সেপ্টেম্বর রাত ১০টায় অভিযান চালিয়ে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারককৃতরা হলেন, ম্যানেজার মোঃ জুয়েল (৩০), তালতলী উপজেলার খদ্দের মোঃ ফয়সাল (২৫) ও মোঃ সোহেল (১৮) সহ দুইজন যৌনকর্মী। হোটেলের পরিচালক মোঃ এনায়েত হোসেনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়দের সূত্রে যায়, আবাসিক হোটেল ঝিনুক ডাকবাংলোয় লিজ নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ পরিচালনা করে আসছে বাউফলের পৌর মেয়র মোঃ জুয়েল। যৌনকর্মীরা জানান, তারা স্থায়ীভাবে ঝিনুক ডাকবাংলোয় ম্যানেজারের মদদে ব্যবসা করে আসছেন।

তারা সুকৌশলে সমুদ্রপারে ও বিভিন্ন স্থান ব্যবহার করে পর্যটক ও স্থানীয় খদ্দের জোগাড় করে অপর একটি দলের মাধ্যমে। তাদের আটক করা সম্ভব হয়নি।

মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, মানব পাচার আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে আটকৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে