আবারও যৌন হেনস্তার অভিযোগ সাবেক মডেলের-ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ।

এবার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ সাবেক মডেলের

সাবেক মডেল অ্যামি ডরিস (বাঁয়ে) ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ছবি : সংগৃহীত


আর কিছুদিন পরই দেশের প্রেসিডেন্টকে নির্বাচিত করবেন যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ। চলছে নির্বাচনের জোর প্রস্তুতি। প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান প্রার্থী বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ডেমোক্রেটিক প্রার্থী জো বাইডেন শিবির ব্যস্ত নির্বাচনী প্রচারণায়। কিন্তু নির্বাচনের আগে যেভাবে কেলেংকারিতে নাম জড়াচ্ছে ট্রাম্পের, তাতে বেশ অস্বস্তিতে রিপাবলিকান শিবির। এবার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছেন সাবেক মডেল অ্যামি ডরিস। অ্যামির অভিযোগ, ১৯৯৭ সালে তিনি ট্রাম্পের কাছে যৌন নিগ্রহের শিকার হয়েছিলেন।

সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অ্যামি জানান, ঘটনার সময় তাঁর বয়স ছিল ২৪ বছর। আর, ঘটনাটি ঘটেছিল ১৯৯৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বর ইউএস ওপেন টেনিস টুর্নামেন্ট চলাকালে।

অ্যামি বলেন, ‘ভিআইপি বক্সের বাথরুমের সামনে আমার ওপর হামলে পড়ে ট্রাম্প। সে আমাকে শক্ত করে জড়িয়ে ধরে। এরপর আমাকে চুমু খাওয়ার চেষ্টা করে। আমার নিতম্ব, বুক—সব কিছু স্পর্শ করছিল ট্রাম্প। এতটাই শক্ত করে আমাকে জাপটে ধরেছিল যে, আমি শতচেষ্টাতেও নিজেকে ছাড়াতে পারিনি।’ যদিও নিজের আইনজীবীর মাধ্যমে অ্যামি ডরিসের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ট্রাম্প।

এবারই প্রথম নয়, ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বারবার মুখ খুলেছেন বিভিন্ন মডেল ও পর্নস্টার। গত নির্বাচনের আগে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন পর্নতারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলস। তাঁর দাবি ছিল, ২০০৬ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ছিল। পরে ট্রাম্প আইনজীবীর মাধ্যমে স্টর্মির সঙ্গে এক লাখ ৩০ হাজার ডলারের একটি চুক্তি করেন। সেখানে শর্ত ছিল স্টর্মি ট্রাম্পের সঙ্গে সম্পর্কের কথা কাউকে বলবেন না। তবে, বরাবরই বিষয়টি অস্বীকার করে এসেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

স্টর্মির পর ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে আসেন আরেক পর্নতারকা জেসিকা ড্রেক। সংবাদ সম্মেলন ডেকে তিনি বছর কয়েক আগে বলেছিলেন, ক্যালিফোর্নিয়ার লেক তাহো-তে একটি গলফ টুর্নামেন্ট চলছিল। তখন জেসিকা ও তাঁর কয়েকজন বান্ধবীকে নিজের কামরায় আমন্ত্রণ জানান ট্রাম্প। জেসিকার বক্তব্য, সেখানেই ইচ্ছার বিরুদ্ধে ট্রাম্প তাঁকে এবং অন্য আরো দুজনকে জড়িয়ে ধরেন এবং জোর করে চুমু দেন। এমনকী জেসিকাকে ট্রাম্পের সঙ্গে ডিনার সারতেও বলা হয়। জেসিকা রাজি না হওয়ায় ট্রাম্প তাঁকে ১০ হাজার ডলার দেওয়ার প্রস্তাব দেন।

এরপর গত বছরই ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ আনেন এক নারী সাংবাদিক। যে সময়ের ঘটনা বলে ওই সাংবাদিক দাবি করেন, ট্রাম্প তখন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ছিলেন না। প্রায় দুই দশক আগের ঘটনাটির বর্ণনা দিতে গিয়ে ই জিন ক্যারল নামে ওই নারী সাংবাদিক দাবি করেন, ২৩ বছর আগে ডোনাল্ড ট্রাম্পের যৌন হেনস্তার শিকার হয়েছিলেনন তিনি। তাঁর অভিযোগ ছিল, একটি ডিপার্টমেন্ট স্টোরের পোশাক বদলানোর কক্ষে সেদিন ট্রাম্প তাঁকে যৌন হেনস্তা করেন।

এবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে আগে আবারও যৌন হেনস্তার অভিযোগে বিদ্ধ হলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে