সৈয়দপুরে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টাকালে’,জনতার হাতে লম্পট আটক

শাহজাহান আলী মনন সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি


নীলফামারীর সৈয়দপুরে এক অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টাকালে চার্জার অটো চালক এক যুবককে হাতে নাতে আটক করেছে এলাকাবাসী। পরে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানা হাজতে রেখেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ৩০ সেপ্টেম্বর বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় শহরের নয়াটোলা কলিমনগর এলাকায়। আটক যুবকের নাম মামুন ইসলাম (২১)। সে ওই এলাকার মোঃ নুর ইসলামের ছেলে।


জানা যায়, নয়াটোলা এলাকায় একটি বাড়িতে ভাড়া থাকে মামুন। পাশের রুমে উত্তরা ইপিজেড কর্মী স্বামী পরিত্যক্তা মহিলাও তার মেয়েকে নিয়ে ভাড়া থাকেন। মেয়েটি সৈয়দপুর তুলশীরাম সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে। বুধবার সকালে মহিলা ইপিজেড এ চলে যায় এবং মেয়েটি একাই বাসায় অবস্থান করছিল। এমতাবস্থায় সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে প্রতিবেশী অটো চালক মামুন মেয়েটিকে একা পেয়ে ঘরে ঢুকে জাপটে ধরে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এসময় মেয়েটি আর্তচিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে দেখতে পায় ঘরের দরজা ভিতর থেকে বন্ধ করা এবং ধস্তাধস্তির শব্দ পাওয়া যাচ্ছে। বাধ্য হয়ে লোকজন দড়জা ভাঙ্গার চেষ্টা করে এবং থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে দড়জা ভেঙ্গে দুইজনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। পরে মেয়েটির অভিযোগের প্রেক্ষিতে অটোচালক যুবকটিকে গ্রেফতার করে হাজতে রেখেছে।


এ ব্যাপারে সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল হাসনাত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ফোর্স পাঠিয়ে দিয়ে ছেলে মেয়েকে থানায় আনা হয়েছে। পরে মেয়েটির মা ধর্ষণ চেষ্টার লিখিত অভিযোগ দেয়ায় গ্রেফতার মামুন কে নীলফামারী জেলা হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। (ছবি আছে)

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে