নাগেশ্বরীতে শীতকালীন সবজির চারা নষ্ট করে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা,চাষাবাদ নিয়ে দুচিন্তায় কৃষকরা

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:


আগাম শীতকালিন সবজির চারার সাথে শত্রæতা করে আগাছা নাশক ঔষধ ছিটিয়ে দুই সবজি চাষীর সবজির চারা নষ্ট করে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। ঔষুধের তীব্রতায় চাষের উপযোগি চারাগুলো পুড়ে গেছে বলে অভিযোগ কৃষকের। ঘটনাটি ঘটেছে কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার কেদার ইউনিয়নের ঢলুয়াবাড়ী গ্রামে। ওই গ্রামের দুই সবজি চাষী শাহাজ উদ্দিন ও রফিকুল ইসলামের ১০ বিঘা চাষ উপযোগি ফুল কপি, বাঁধাকপি, বেগুন ও মরিচের চারা নষ্ট করে দেয় দূর্বৃত্তরা। এতে দুই চাষীর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

ভূক্তভোগী সবজি চাষী শাহাজ উদ্দিন বলেন, তার দুই বিঘা চাষযোগ্য উচ্চ ফলনশীল মরিচের চারা, দুই বিঘা ফুলকপি, দুই বিঘা বাঁধাকপির চারা অতিরিক্ত মাত্রায় আঘাছা নাশক ছিটিয়ে নষ্ট করে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। এতে আমার ৫ থেকে ৬ লাখ টাকার সবজি উৎপাদন ব্যহত হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্থ আরেক চাষী রফিকুল ইসলাম জানান, তার দুই বিঘা চাষযোগ্য বেগুনের চারা এবং দুই বিঘা বাঁধাকপির চারা একইভাবে নষ্ট করে দেয়া হয়েছে। এতে তিন লাখ টাকার সকজি উৎপাদন ব্যহত হয়েছে তার। ওই এলাকার বাসিন্দা তছলিম মিয়া, রাকিবুল ইসলাম, বাচ্চু মিয়া, খোরশেদ আলম জানায়, প্রতিবছর এই দুই কৃষকের উৎপাদিত সবজি দিয়ে এলাকার অর্ধেক চাহিদা মেটে। এবার তাদের চারা নষ্ট করে দেয়ায় তাদের এবং এলাকার অনেক ক্ষতি হয়েছে।

কেদার ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুল মতিন জানান, ঘাষ মারার ঔষুধ দিয়ে এইসব চারা মেরে ফেলা হয়েছে। বিষয়টি খুবেই দু:খজনক। সন্দেহজনক ব্যক্তিদের খুজে বের করার চেষ্টা চলছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর আহমেদ মাছুম জানান, বিষয়টি আমাকে কেউ জানায়নি, তবে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকরা অভিযোগ দিলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এছাড়া তারা (কৃষক) আইনি প্রক্রিয়ায় গেলে সহযোগিতার আশ্বাসও দেন তিনি।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে