কুড়িগ্রামে দিনে সূর্যালোক, রাতে কুয়াশার হাতছানি


বাংলা পঞ্জিকা অনুয়ায়ী মঙ্গলবার ২৮ আশ্বিন। সেই অনুয়ায়ী শরতের দ্বিতীয় মাস। এর পর হেমন্তের দুই মাস পর শুরু হবে শীতকাল। রৌদ্রজ্জ্বল দিনে এখনও প্রচন্ড গরম অনুভূত হলেও রাতের শেষ ভাগে শীত অনুভূত হচ্ছে দেশের উত্তরের জেলা কুড়িগ্রামে।


সীমান্তবর্তী এ জেলা ভারতের হিমালয়ের কাছাকাছি হওয়ায় হেমন্তের শুরু থেকে আগাম শীতের আগমন ঘটছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

গত বছরসহ অন্যান্য বছরগুলোতেই দেখা গেছে,কার্ত্তিক মাসের শুরুতেই শীতের অনুভুত হলেও এবার প্রায় এক মাস আগে আশ্বিনের শুরুতেই শীতের অনুভুত হয়েছে। ইতিমধ্যেই এ অ লে শুরু হয়েছে শীতের আগমনী বার্তা।

গত সেপ্টেম্বর মাসের শেষে ও অক্টোবরের প্রথম দিকে টানা বৃষ্টিপাতের পর থেকে এ অ লে কুয়াশা পরছে মধ্যরাতে।
মঙ্গলবার সকালে জেলার ফুলবাড়ী, নাগেশ্বরী ও ভুরুঙ্গামী উপজেলায় খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে, সকাল ৮ টা পর্যন্ত বিভিন্ন গাছের পাতা, ঘাস ও ধান ক্ষেতে শিশির জমে থাকছে। ভোর রাতে শরীরে কাঁথা জড়াতে হচ্ছে এ অ লের মানুষকে। এক সপ্তাহ ধরে দিনের বেলা সূর্যের তেজ ও তাপমাত্রা বেশি থাকায় কাহিল হয়ে পড়েছেন উত্তরের জনপথ।

কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র সরকার জানান, আবহাওয়া অফিসের তথ্য অনুযায়ী ১৪ অক্টোবর থেকে শীতের আমেজ শুরু হওয়ার কথা থাকলেও এবার কয়েকদিন আগে থেকেই শীতের আমেজ শুরু হয়েছে। এ বছর বর্ষাকালটা র্দীঘ মেয়াদি থাকায় শীতের প্রকোপটা স্বল্প মেয়াদী হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে এবং বঙ্গপসাগরে নিন্মচাপ থাকায় এ অ লে আকাশের মেঘের আনাগোনা কম থাকায় দিনের বেলা তাপমাত্রা একটু বেশি। তবে আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই সূর্যের তেজ ও তাপমাত্র কিছুটা কমতে শুরু করবে।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে