কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ধর্ষণের চেষ্টা,সতীনের ছেলে আটক

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :


কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে এক সন্তানের জননী সৎমাকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে সতীনের মাদকাসক্ত যুবক ছেলে মিজানুর রহমান (২৩) এর বিরুদ্ধে।


গত শনিবার ১৭ অক্টোবর রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের নাওডাঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।


আজ সোমবার(১৯ অক্টোবর) দুপুরে নির্যাতিতা নারী বাদী হয়ে ফুলবাড়ী থানায় ঐ যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে।
অভিযোগের ভিত্তিতে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ উপজেলার বালাহাট বাজার থেকে আজ সোমবার (১৯অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মিজানুরকে আটক করে।

নির্যাতিতা নারী জানান , ৯/১০ বছর আগে প্রথম স্ত্রীকে তালাক দিয়ে তাকে বিয়ে করেন মিজানুরের পিতা ছোবেদ আলী । তাদের ঘরে ৬ বছরের একটি কন্যা সন্তান আছে। এর মধ্যে সতীনের মাদকাসক্ত ছেলে মিজানুরের কু-নজর পড়ে তার উপর। এর আগেও কয়েকবার সে ধর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়। শনিবার রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে সন্তানসহ নিজ ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন তিনি। এ সময় স্বামী ছোবেদ আলী বাড়ী থেকে একটু দুরে টংয়ের পাড়ে হাওয়া খেতে যান। বাড়ীতে কেউ না থাকার সুবাদে মিজানুর ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত অবস্থায় তাকে জাপটে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে পাশে ঘুমিয়ে থাকা শিশু কন্যাও জেগে উঠে। পরে মা- মেয়ের চিৎকারে এলাকাবাসী দৌড়ে এসে মিজানুরকে হাতেনাতে আটক করে। সতীনের ছেলে কর্তৃক ধর্ষণের চেষ্টার শিকার হওয়ায় ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। তবে ধর্ষণের চেষ্টাকারী যুবক একই বাড়ীতে বসবাস করায় আবারও ধর্ষণের শিকার হওয়ার আশংকা করছেন ওই নারী।
স্থানীয় মকবুল হোসেন, মোফাজ্জল হোসেন ও মনিরুজ্জামান জানান, মিজানুর নিয়মিত গাঁজা সেবন করে। নেশাগ্রস্ত হয়ে সে বার বার সৎমার উপর নির্যাতন চালায়।
নাওডাঙ্গা ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শাহাজামাল মিয়া জানান, এর আগেও একবার এ ধরণের ঘটনা ঘটিয়েছে মিজানুর। তাই ওই নারীকে আইনের আশ্রয় নিতে বলা হয়েছে ।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাজীব কুমার রায় জানান, অভিযুক্ত মিজানুরের বিরুদ্ধে তার সৎমা বাদী হয়ে থানায় একটি নারী-শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেছে এবং অভিযুক্ত আসামীকে রাতেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে