কুড়িগ্রামে ডায়রিয়ায় একজনের মৃত্যু

bdjournalist

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি,২১ জুলাই

কুড়িগ্রামের উলিপুরে ডায়রিয়া আক্রান্ত হয়ে মনাই বর্মন সাদু (৬০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (২০ জুলাই) রাতে আক্রাত ব্যক্তিকে মুমূর্ষু অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে দাবি করছেন তার স্বজনরা।
তবে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সুভাষ চন্দ্র সরকার জানিয়েছেন, ওই রোগীকে হাসপাতালে ভর্তির আগেই তার মৃত্যু হয়।

মনাই বর্মন সাদু উপজেলার পৌর এলাকার রাজারামক্ষেত্রি গ্রামের রুহিদাস বর্মনের ছেলে বলে জানা গেছে।

নিহত মনাই বর্মনের ছেলে রতন বর্মন বলেন, ‘বাবা তিন দিন ধরে পাতলা পায়খানায় ভুগছিলেন, সোমবার তার অবস্থার অবনতি হলে উলিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। কিন্তু তার চিকিৎসা শুরু হওয়ার কিছুক্ষন পর তিনি মারা যান।’

উলিপুর স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে ডায়রিয়া আক্রান্ত হয়ে ৬ জন রোগী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, চলমান বন্যা ও ভারী বর্ষণে জলাবদ্ধতা সৃষ্টির কারণে পানিবন্দি মানুষজন ডায়রিয়া ও জ্বর-সর্দিসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। কাগজে কলমে স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল টিম থাকলেও মাঠে তাদের কার্যক্রম পরিলক্ষিত হচ্ছে না। বানের পানিতে বেশিরভাগ কমিউনিটি ক্লিনিক জলমগ্ন থাকায় গ্রামীণ জনগোষ্ঠিকে বিভিন্ন পল্লি চিকিৎসক ও ওষুধের দোকানদারদের নিকট চিকিৎসা নিতে হচ্ছে। ফলে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছেন বানভাসিরা।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সুভাষ চন্দ্র সরকার বলেন, মনাই বর্মন সাদুকে হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বন্যা দূর্গত এলাকায় মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে ১৫ টি মেডিকেল টিম সার্বক্ষনিক চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত রয়েছে।

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে